December 2, 2022, 4:51 pm

কৃষি উন্নয়নের রুপকার শেখ হাসিনা

১৯৪৭ সালের জুন মাসে বড় লাট লর্ড ব্যাটেন দেশ ভাগের ঘোষণা দেন ১৯৪০ সালে লাহোর প্রস্তাবের ভিত্তিতে বঙ্গবন্ধু অসম বাংলা চান। পশ্চিমা শাসকেরা অসম কলকাতা বাদ দিয়ে ভারত ও পাকিস্তান রাষ্ট্র তৈরি করে ১৯৭১ সালে ৩০ লাখ শহীদের রক্তের বিনিময়ে বঙ্গবন্ধু স্বাধীন বাংলাদেশ গড়ে। ১৯৭০ সালে পূর্ব পাকিস্তানে ফসল উৎপাদন ছিল ১ কোটি ১১ লাখ টন ১৯৭১ সালে যুদ্ধের কারণে তা কমে হয় ৯৯ লাখ ৬ হাজার টন। ঘাটতি মেটাতে ৩০ লাখ টন খাদ্য আমদানি করা হয় ১১ কোটি মানুষ দেশের ৮৭,২২৩টি গ্রামে বসবাসে রয়। ১৯৭১-২০২০ সাল পর্যন্ত ধান চাষের জমি কমেছে ২০ শতাংশ তবে উচ্চফলনশীল জাতের বদৌলতে বাংলাদেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ, ধান উৎপাদনে বাংলাদেশের অবস্থান বিশ্বের মধ্যে তৃতীয়। ২০১৭-১৮ অর্থবছরে ধান উৎপাদন হয়েছে ৩৩২.৭৯ লাখ টন ২০১৮-১৯ অর্থবছরে ধান উৎপাদন হয়েছে ৩৭৩.৬৪ লাখ টন ২০১৯-২০ অর্থবছরে ধান উৎপাদন হয়েছে ৩৮৬.৯৫ লাখ টন। শাকসবজী উৎপাদনেও বাংলাদেশের অবস্থান বিশ্বের মধ্যে তৃতীয় ২০১৯-২০ অর্থবছরে শাকসবজী উৎপাদন হয়েছে ১৭২ লাখ ৪৭ হাজার টন দেশের চাহিদা মিটিয়ে এখন বিদেশেও রফতানি হয়। ২০১৮-১৯ সালে দেশে আলুর উৎপাদন হয়েছে ১০৯ লাখ টন দেশের চাহিদা ৭০ লাখ টন আর বাকি ৪০ লাখ টন উদ্বৃত্ত রয়। ১৯৭০ সালে দেশে ভুট্টার উৎপাদন ছিল ৩০০০ টন ১৯৭১ সালে যুদ্ধের সময় তা কমে হয় ২০০০ টন ২০১৯-২০ সালে ভুট্টার উৎপাদন বেড়ে হয় ৫৪ লাখ টন, কৃষি মন্ত্রণালয় ভুট্টার উৎপাদন ১ কোটি টনে উন্নীত করবে। ১৯৮৩-৮৪ অর্থবছরে মৎস্য উৎপাদন ৭.৫৪ লাখ টন ২০০৮-০৯ অর্থবছরে মৎস্য উৎপাদন ২৭.০১ লাখ টন ২০১৭-১৮ অর্থবছরে মৎস্য উৎপাদন ৪২.৭৭ লাখ টন ২০১৮-১৯ অর্থবছরে মৎস্য উৎপাদন ৪৩.৮৪ লাখ টন ২০১৯-২০ অর্থবছরে মৎস্য উৎপাদন ৪৪.৫০ লাখ টন ২০২০-২১ অর্থবছরে মৎস্য উৎপাদন ৪৫.৫২ লাখ টন। ২০১৯-২০ অর্থবছরে ইলিশ উৎপাদন ৫ লাখ ১৭ হাজার ১৯৮ টন ২০০৮-০৯ অর্থবছরে যা ছিল ২ লাখ ৯৯ হাজার টন। ২০১৮-১৯ অর্থবছরে মৎস্য ও মৎস্যজাত পণ্য রফতানি হয় ৭৩,১৭১,৩২ টন দেশের আয় ৩,৯৮৫,১৫ কোটি টাকার বৈদেশিক মুদ্রা। বর্তমানে দেশের জিডিপি’তে মৎস্যখাতের অবদান ৩.৬১ শতাংশ। ২০১৭-১৮ অর্থবছরে তরল দুধ উৎপাদন ৯৪.০৬ লাখ টন, মাংস ৭২.৬০ লাখ টন, ডিম ১৫৫২ কোটি; ২০১৮-১৯ অর্থবছরে তরল দুধ উৎপাদন ৯৯.২৩ লাখ টন, মাংস ৭৫.১৪ লাখ টন, ডিম ১৭১১ কোটি; ২০১৯-২০ অর্থবছরে তরল দুধ উৎপাদন ১০৬.৮০ লাখ টন, মাংস ৭৬.৭৪ লাখ টন, ডিম ১৭৩৬ কোটি; দেশের চাহিদা মিটিয়ে তরল দুধ, মাংস ও ডিম এখন বিদেশে রফতানি হয়। কৃষকদের স্বয়ংসম্পূর্ণ করার কাজ দ্রুত এগিয়ে চলছে কৃষিতে বিশেষ প্রণোদনায় যান্ত্রিকীকরণ শুরু হয়েছে হাওড় অঞ্চলের ধান আগাম তোলার উদ্যোগ নিয়েছে মানুষ এখন তিনবেলা পেটভরে ভাত খেতে পারছে। অনুন্নত দেশের তালিকা থেকে বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশ হয়েছে ২০৪১ সালে উন্নয়নশীল দেশ থেকে উন্নত দেশের তালিকায় বাংলাদেশ নাম লেখাবে কৃষি উন্নয়নের রুপকার শেখ হাসিনা দেশকে উন্নতির শিখরে নেবে। (সংগৃহীত)

নিউজটি শেয়ার করুন


© All rights reserved © seradesh.com
Design, Developed & Hosted BY ALL IT BD